ভয়ংকর সেই রাত - পর্ব-১

ভয়ংকর সেই রাত – পর্ব-১

গল্পের নামভয়ংকর সেই রাত

লেখক—সাঈদ রহমান

 

পর্ব-১

২০১০ সালে যখন আমি ক্লাস সেভেন এ পড়তাম। তখন আমি একটা গ্রামে বাস করতাম যার নাম ছিল কানাইঘাট।
আমার ছোট বেলা থেকে ইচ্ছা ছিল ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে পড়ার। যা গ্রামে ছিল না।
গ্রামের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্লাস ফাইভ পর্যন্ত পড়েছি। এর পর একদিন আমি শহরে একটা স্কুল এ পরীক্ষা দিই এবং আমি পাস করি। প্রতিদিন গ্রাম থেকে শহরের স্কুলে আসা যাওয়া করা সম্ভব ছিল না।
তাই আমার বাবা স্কুল এর পাশে একটা বাসা নেন।

 




 

আমি আমার মা বাবা ছোট ভাই রওনা হলাম শহরে দিকে এর পর পৌঁছে যাই বাসায়।
পুরাতন বাসা ছিল দেখতে ভয়ানক হলেও আমার কোনো ভয় করে নি। বেশ রাতে পৌছেছি তাই সবাই বাসায় গিয়ে ঘুমায় পডি। বেশ কয়েকদিন ভালোই গেলো। স্কুল এ নতুন বন্ধু। হঠাৎ আমার এক বন্ধু এসে আমাকে বলে “তোমরা যে বাসায় থাকো ওখান থেকে চলে যাও নাতো কপালে দুঃখ আছে”।
ও বলেই চলে গেল আমি ওর কথা কানে নিলাম না স্কুল ছুটির পর বাসায় গিয়ে ফ্রেশ হয়ে খাওয়া দাওয়া করে ঘুমায় পডি।
ঘুম থেকে উঠে দেখি সনধ্যা ৭ :০০ বাজে ওঠে মুখহাত ধুয়ে পড়তে বসি। পড়া শেষ করে ঠিক ৯:০০টার দিকে টিভি দেখতে দেখতে ভাত খাই। মা ও বাবা এখন ঘুমাতে যাচ্ছে। আমি আর আমার ছোট ভাই একসাথে থাকতাম। ভাই ঘুমিয়ে পড়েছে আমি তখনও পড়তেছিলাম।
তখন ঠিক রাত ১২ টা ৩০ মিনিট।
চার দিকে শুনশান নিরবতা কোনো আওয়াজ নাই।
হঠাৎ কান্নার শব্দ কানে ভেসে আসলো।
সেই মুহূতে কারেন্ট ও চলে যায়। ভালো করে খেয়াল করলাম কান্নার আওয়াজ নিচ থেকে আসছে। ওই মুহূর্তে নিচে গিয়ে যা দেখলাম সেটা আজও মনে পড়লে গায়ের লোম খাড়া হয়ে যায়।

 

পার্ট ২

 

কি যে কান্নার আওয়াজ।
আমি মা বাবা কে না ডেকে দেখতে গেলাম কে কান্না করছে।
হাতে মোমবাতি জ্বালিয়ে আস্তে আস্তে নিছে নামি কেমন জানি একটা গন্ধ।
হঠাৎ দেখতে পাই ২য় তলার একটি বাসায় দরজা খোলা ওখানে একটা সাদা কাপন পরা লাশ শুয়ে আছে। আমি নিজে আমার চোখ কে বিশ্বাস করতে পারছিলাম না।

 




 

দেওয়ালে বড় বড় লাল রঙের হাত, কেউ জেনো আমার নাম ধরে ডাকছে। ভয়ে আমার হাত পা জমে যাচ্চে।
কি করব কিছুই বুঝতে পারছিলাম না।
দৌড়ে গেলাম বাসায়, গিয়ে মা বাবা কে সব খুলে বলি।
মা বাবা আমি আমার সাথে আমার প্রতিবেশী, সবাই মিলে নিচে এসে দেখি দরজা বন্ধ, গন্ধ ও নাই কোনো লাস নাই।
সব কিছু স্বাভাবিক।
আমি দেখে অবাক, মনে মনে ভাবলাম, কি দেখলাম আমি.?

ওইখানের মানুষে কাছে থেকে যা জানতে পারলাম, কিছু দিন আগে ওইখানে একটা খুন হয়েছিল, ওর আত্মা ওইখানে ঘুরে বেড়ায়।
ভয়ে কেউ থাকতে পারে না ওই বাসায়।

এর পর দিন আমি স্কুল এ এককোনে বসে ওই সব কথা ভাবছি হঠাৎ আমার বন্ধু টা এসে আমার দিকে চেয়ে হেসে চলে যায়।
আমি কিছু বুঝতে পারছি না কি হলো এ সব…?

 




গল্পটি আপনার কেমন লাগলো রেটিং দিয়ে জানাবেন
[Total: 0   Average: 0/5]
বন্ধুদের সঙ্গে "Share" করুন।
Open chat
1
যোগাযোগ করুন
আপনার গল্পটি প্রকাশ করার জন্য যোগাযোগ এখনে।